free_shipping_English_728x90
কলকাতা
ভারতের বিভিন্ন মানচিত্র

কলকাতা শহর মানচিত্র

Store-banner

Kolkata City Map in Bengali

কলকাতা শহর মানচিত্র
কলকাতা শহর মানচিত্রে, পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার প্রধান সড়ক, রেলপথ, হোটেল, হাসপাতাল, ধর্মীয় স্থান, বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় এবং বিশিষ্ট স্থানগুলি দেখানো হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ – কলকাতা শহর

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা, ভারতের এক অন্যতম মহানগরী। এটি পূর্ব ভারতে হুগলি নদীর তীরে অবস্থিত। “আনন্দ নগরী” নামে পরিচিত কলকাতা- মাদার টেরেজা, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, সত্যজিৎ রায় এবং সুভাষ চন্দ্র বোসের মত বহু মহান ব্যক্তিত্বদের আবাসস্হল।

কলকাতা ২২.৮২ ডিগ্রী উত্তর ৮৮.২০ ডিগ্রী পূর্ব দিকে অবস্থিত। এটি হুগলি নদীর তীরে বিস্তৃত এবং ১৭ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত। কলকাতার মোট আয়তন ১৪৮০ বর্গ কিলোমিটার। সুন্দরবনের ব-দ্বীপ অঞ্চল বঙ্গোপসাগর থেকে কলকাতাকে পৃথক করেছে।

এই শহর বিভিন্ন ভূ-সংস্থান অঞ্চলে বিভক্ত এবং পাঁচটি একক হল যথা- পশ্চিম, পূর্ব, দক্ষিণ, উত্তর ও মধ্য কলকাতা। শহরের সংলগ্ন অঞ্চলগুলি হল- হুগলি, হাওড়া, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা ও নদীয়া।

কলকাতা সম্পর্কে

এই শহরের সঠিক অবস্থান জানতে এবং তার সুবিশাল এলাকায় দ্রুতগতিতে যেকোন গন্তব্যতে পৌঁছতে দর্শকদের এই মানচিত্র একবার দেখে নেওয়া দরকার। কলকাতার পশ্চিমাঞ্চল বরাবর হুগলি নদী প্রায় ১৫ কিলোমিটার পথ ধরে বয়ে চলেছে। কলকাতা ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর এবং বিভিন্ন সংস্কৃতি, রাজ্য এবং ধর্ম হতে আগত মানুষরা এখানে একসাথে বসবাস করার জন্য এটি একটি বিশ্বজনীন শহর হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। কলকাতায় প্রযুক্তি, শিল্প, শিক্ষা, পর্যটন এবং আরও বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রচুর সুযোগ রয়েছে।

বিশ্বের সকল প্রান্ত থেকে বহু মানুষ কলকাতা পরিদর্শন করতে আসে। কলকাতা একটি সুবিশাল শহর, যার দর্শকদের সাথে বহন করার জন্য একটি ভাল মানচিত্রের প্রয়োজন। এছাড়াও এই শহরে মেট্রোরেল রয়েছে যা দ্রুত যোগাযোগ রূপায়নে সাহায্য করে। এই শহরে বহু গুরুত্বপূর্ণ জায়গা আছে যেমন বেলুড়, সুভাষনগর, মির্জাপুর, গড়িয়া এবং আরো অনেক। যারা এই জায়গাগুলি পরিদর্শন করতে চান, তারা মহাসড়কের সহায়তা নিতে পারেন যা সমস্ত শহর জুড়ে এবং বাইরেও সঞ্চালিত হয়। কলকাতায় অনেক ধর্মীয় স্থান আছে যা দর্শকদের জন্য উত্তম আকর্ষণ, যেমন – সেন্ট থমাস চার্চ, জৈন মানিকতলা, জৈন বেলগাছিয়া, গুরুদুয়ার, এবং আরো অনেক। কলকাতায় সব রকমের মুল্যের প্রচুর হোটেল আছে। পর্যটকদের জন্য এখানে রয়েছে সাত তারকা, পাঁচ তারকা এবং বাজেট হোটেল। এই মানচিত্রে দর্শকদের আকর্ষণ করার মত বিভিন্ন হোটেলের বিবরণ প্রদান করা হয়েছে। দ্য হায়াত রিজেন্সি, আই.টি.সি সোনার, ওবেরয় গ্র্যান্ড, দ্য গোল্ডেন পার্ক, হিন্দুস্তান ইন্টারন্যাশনাল এবং দ্য অশোকা এই শহরের কয়েকটি বিশিষ্ট হোটেল।

এখানের কথ্য ভাষা অধিকাংশই বাংলা, অন্যান্য কথ্য ভাষাসমূহ হল – হিন্দি, ইংরেজি এবং সেইসাথে কয়েকটি অন্যান্য। হিন্দু, মুসলমান, শিখ এবং খ্রিস্টান সহ সব ধর্মের মানুষ কলকাতায় একসঙ্গে বসবাস করে।

কলকাতার পরিবহন ব্যবস্থা

কলকাতায় আধুনিক ও সেইসাথে পুরাতন পরিবহন যোগাযোগ ব্যবস্থাও রয়েছে। কলকাতা একটি মহানগরী হওয়ায় এখানে সকল আধুনিক পরিবহন ব্যবস্থা উপলব্ধ এবং দেশ তথা বিশ্বের বাকি অংশের সাথে সুসংযুক্ত। এখানে সড়ক ও জাতীয় মহাসড়কের একটি ভাল জালবিন্যাস রয়েছে যেখানে আপনি প্রচুর পরিমাণে গাড়ী, বাস, ট্যাক্সি এবং অটো রিকশা দেখতে পাবেন। কলকাতা তার ট্রাম চলাচল ব্যবস্থার জন্য বিখ্যাত। এটি একমাত্র শহর যেখানে ট্রাম আছে। পুরুষদের দ্বারা চালিত রিকশা এখানে একটি প্রচলিত দৃশ্য। এর ভাড়া যুক্তিসঙ্গত এবং শুধুমাত্র স্বল্প দূরত্বে ব্যবহারের জন্য মন্দ নয়।

কলকাতার মেট্রো, ভ্রমণের জন্য এক অত্যন্ত সুবিধাজনক মাধ্যম এবং লক্ষাধিক মানুষ মেট্রোর মাধ্যমে শহরের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যাতায়াত করে। এটা স্থানীয় মানুষ সেইসাথে পর্যটকদের দ্বারা বিশ্বস্ত। এটি ভারতের মধ্যে প্রথম পাতাল রেল। এটি উত্তরে দমদম থেকে শুরু হয় এবং পার্ক স্ট্রিট এবং তারপর এসপ্ল্যানেড এবং দক্ষিণে টালিগঞ্জ সম্মুখের দিকে চলতে থাকে।

মেট্রো পথ অনুসরণের জন্য দর্শকরা একটি মানচিত্র বহন করতে পারেন, যা আপনাকে শ্যামবাজার, বেলগাছিয়া, চাঁদনি চক, রবীন্দ্র সদন, নেতাজি ভবন, যতীন দাস পার্ক, সেন্ট্রাল, গিরিশ পার্ক, মহাত্মা গান্ধী রোড এবং শোভাবাজার প্রভৃতি জায়গায় নিয়ে যেতে পারে।

নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বোস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর শহরের উত্তরে অবস্থিত এবং পূর্বে দমদম বিমানবন্দর নামে পরিচিত ছিল। এটি সিটি সেন্টার থেকে প্রায় ১৭ কিমি দূরত্বে অবস্থিত। ভারত তথা বিশ্বের বিভিন্ন শহরে যাওয়ার বিভিন্ন বিমান এখান থেকে ছাড়ে।

দর্শনীয় স্থান

এখানে অসংখ্য স্থান আছে যেগুলি আজকের পর্যটকদের আকর্ষণের বিষয়। ব্রিটিশ শাসনামলের বহু পুরাতন স্থাপত্য কাঠামো আজও একটি অত্যন্ত প্রশংসনীয় নির্মাণকার্য। সল্ট লেক স্টেডিয়াম পরিদর্শন করুন, যা বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টেডিয়াম। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল একটি অত্যন্ত অত্যাশ্চর্য সৌন্দর্য। অন্যান্য স্থানগুলি হল – মার্বেল প্যালেস, ইডেন গার্ডেন ক্রিকেট স্টেডিয়াম, এসপ্ল্যানেড, পার্ক স্ট্রীট, জুলজিক্যাল গার্ডেন এবং বোটানিকাল গার্ডেন।

পরিদর্শকদের জন্য এই মানচিত্র দেখে এই স্থানগুলিতে পৌঁছানো সুবিধাজনক হবে।

* সর্বশেষ সংযোজন : ২৩ - শে এপ্রিল, ২০১৫