free_shipping_English_728x90

দমন ও দিউ পর্যটন

Store-banner

Travel to Daman and Diu in Bengali

দমন ও দিউ পর্যটন
* দমন ও দিউ পর্যটন মানচিত্রে - দমন ও দিউ-এর বিভিন্ন প্রধান শহর, সৈকত, তীর্থস্থান, হোটেল ও অন্যান্য পরিদর্শনযোগ্য স্থানগুলিকে দেখানো হয়েছে।

দমন ও দিউ পর্যটন




দমন ও দিউ পর্যটনে বিভিন্ন পর্যটন আকর্ষণ ও ঐতিহাসিক স্থানের পরিদর্শনও অন্তর্ভূক্ত রয়েছে। দমন ও দিউ পর্যটনে, এই অঞ্চলের হেঁয়ালিপূর্ণ সৌন্দর্য্য ও তার সমৃদ্ধ ঐতিহাসিক অতীতকে উদ্ঘাটিত করে। এই অঞ্চলের অধিকাংশ স্মৃতিসৌধগুলি পর্তুগীজ ঔপনিবেশিক শাসনামলে নির্মিত হয়েছিল। এই স্মৃতিসৌধ ও ঐতিহাসিক স্থানগুলি এখনও প্রাচীন জগতের চারুতার নিদর্শনকে বজায় রেখেছে, যা পর্যটকদের আকৃষ্ট করে। পর্যটকরা পুরনো স্থানগুলির সঙ্গে নতুন স্থানগুলিও পরিদর্শন করতে পারেন। সরকারের প্রচেষ্টায়, পর্যটকদের পরিভ্রমণের জন্য দমন ও দিউ-তে বিষয়ভিত্তিক উদ্যানগুলি নির্মাণ করা হয়েছে।


তিনদিক দিয়ে সমু্দ্র দ্বারা বেষ্টিত, দমন ও দিউ-এর অঞ্চলটি চমৎকার সমু্দ্র-সৈকতগুলির সঙ্গে প্রতিভাশীল হয়ে উঠেছে। এখানকার চকমকিত বালুকা তট বরাবর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য ও নিরবচ্ছিন্ন ঢাল পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য প্রলুব্ধ করে।


দমন ও দিউ সফরযাত্রা, এখানকার কেনাকাটার শপিং ক্ষেত্রগুলি ভ্রমণ ব্যতীত অপূর্ণ থেকে যাবে। পর্যটকেরা দমন ও দিউ-এর এই সুন্দর ভূমিতে তাদের সফরের স্মৃতিচিহ্ন হিসাবে এখানে তৈরী বিভিন্ন সামগ্রী ও হস্তনির্মিত দ্রব্যাদি সংগ্রহ করে বাড়িতে নিয়ে আসতে পারেন। এই শহরের কেন্দ্রে বড় শপিং সেন্টার ও এম্পোরিয়ামগুলি আচ্ছাদিত রয়েছে। পর্যটকেরা এই অঞ্চলের স্থানীয় বাজারগুলিতে ভ্রমণ করেও ভালো দর কষাকষির মাধ্যমে জিনিষপত্র কিনতে পারেন।


দমন ও দিউ- তে ভ্রমণে গেলে, পর্যটকরা দমনে বিলাসবহুল রিসর্টে থাকতে পারেন। রিসর্টগুলিতে বিশ্বের যে কোনও প্রান্ত থেকে আগত জাতীয় ও আন্তর্জাতিক উভয় পর্যটকদের জন্যই অত্যাধুনিক সুবিধাসহ সুসজ্জিত রয়েছে।

দমন ও দিউ- তে পরিদর্শনমূলক স্থান




দমন ও দিউ আপনাকে সতেজ অবকাশ নিবেদন করে। দমন ও দিউ হল সকল ঋতুতে ও সকলের জন্য এক পর্যটন গন্তব্যস্থল। সরল, শান্ত ও মনোরম রৌদ্র-স্নাত সমুদ্র সৈকত, স্মৃতিবেদনাতুর দূর্গ ও গির্জা এবং স্থানীয় ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির এক সমৃদ্ধতা – দমন ও দিউ-তে পর্যটন আকর্ষণকে অপরিমিত করে তুলেছে।


দমন ও দিউ-এর ইতিহাস প্রায় ২০০০ বছরের প্রাচীন। এমনকি মহাভরতেও দিউ-এর বর্ণনা খুঁজে পাওয়া গেছে, যখন পান্ডব ভ্রাতারা তাদের চৌদ্দ বছরের বনবাসের সময় বেশ কয়েকদিন এখানে কাটিয়েছিলেন।


তার অনুপম সৌন্দর্য্যের দরুন, বিজয়ী রাজা ও রাজকুমারদের দমন ও দিউ উপহার দেওয় হত।

দমন ও দিউ- তে দর্শনীয় স্থান




দমন ও দিউ-এর দর্শনীয় স্থানগুলির বিষয়ে বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে –

দেভকা সৈকত




বেশ কিছু বর্ণময় ফোয়ারা সহ এখানে একটি চিত্তবিনোদনমূলক উদ্যান রয়েছে এবং প্রাণোচ্ছল একটি স্থান।

মোতি দমন ফোর্ট




এই সুবিশাল দূর্গটি ষোড়শ শতকের প্রাচীন। পর্তুগীজদের এক বিপুল সংখ্যক মধ্যবিত্ত ভদ্রসম্প্রদায়ের মানুষজন তাদের পরিবারের সঙ্গে এই দূ্র্গের অভ্যন্তরীণ সংকীর্ণ স্থানকে জনবসতি হিসাবে ব্যবহার করতেন।

নানি দমন




এখানে একটি প্রাচীন গির্জা, একটি দূর্গ এবং একটি মাছ ধরার ফেরিঘাট রয়েছে। বাতিঘরটি তার সুদৃশ্য সৈকতে এক রহস্যময় কমনীয়তা উপলব্ধ করায়।

দমনগঙ্গা ট্যুরিস্ট কমপ্লেক্স




কৃ্ত্রিমভাবে নির্মিত ক্যাফেটেরিয়া, কটেজ, সভাগৃহ (কনফারেন্স হল), সুস্বাস্থ্য ক্লাব (হেল্থ ক্লাব) ইত্যাদি সু-সমন্বিত ভবনটি অবশ্যই তার সৌন্দর্য্য, সুযোগ-সুবিধাদি ও আকারের সঙ্গে আপনাকে পুলকিত করে তুলবে।

ফোর্ট অফ দিউ




দমন ও দিউ-তে অবস্থিত পর্যটন আকর্ষণগুলির মধ্যে, দিউ ফোর্ট একটি উল্লেখযোগ্য স্থান অর্জন করেছে। তিন দিক দিয়ে সমুদ্র দ্বারা কিনারাবর্তী, মনোরম গঠন শহরসুলভতা প্রধান্য পায় ও সমুদ্রের এক চমৎকার দৃশ্য নিবেন করে।

হিলসা আ্যকোয়রিয়াম : সাম্প্রতিককালে গঠিত হিলসা আ্যকোয়রিয়াম, বর্ণময় ও সুন্দর সুন্দর মাছের এক সুভান্ডারকে প্রদর্শিত করে।

জামপোর সৈকত




নির্মল সমুদ্র-সৈকত হল একটি আদর্শ স্থান এবং এখানকার নারিকেল গাছের ফিস্-ফিস্ শব্দ ও চারপাশের অলসতা এ স্থানটিকে আরোও আদর্শ করে তুলেছে।

চার্চ অফ বোম জেসাস




গির্জাটি সপ্তদশ শতব্দীতে পর্তুগীজদের দ্বারা নির্মিত হয়েছিল এবং এটি তার চিত্তাকর্ষক গোলাপকাষ্ঠ ভাস্কর্যের জন্য সুপ্রসিদ্ধ।

নাগোয়া সৈকত




এই অর্ধ-বৃত্তাকার সৈকতটি বুচারওয়াড়া গ্রামে অবস্থিত। এখানে আপনি সাঁতার কেটে বা বিভিন্ন ওয়্যাটার স্পোর্টস (জল-ক্রীড়া)-এর মাধ্যমে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পারেন।

গঙ্গেশ্বর মন্দির




ভগবান শিবের উৎসর্গীকৃত এই মন্দিরটি সমু্দ্রের কিনারে পাথরের মাঝখানে পঞ্চ লিঙ্গের আবাসস্থল।

* সর্বশেষ সংযোজন : ১৫ - ই জুন, ২০১৫